বুধবার, নভেম্বর 25, 2020

পুজোয় আঁচলে থাকুক করোনা
পুজোয় আঁচলে থাকুক করোনা

পুজোয় আঁচলে থাকুক করোনা

  • scoopypost.com - Sep 22, 2020
  • গোটা বছর তাকিয়ে থাকা দুর্গাপুজোর ফর্ম‍্যাট নিয়ে উদ‍্যোক্তা থেকে আমবাঙালি সকলের মনেই ইতিউতি উড়ে বেড়াচ্ছে মন খারাপের মেঘ। করোনা-কালে এমনটাই তো স্বাভাবিক। করোনা সংক্রমণের সমীক্ষায় প্রকাশ, মহিলাদের সংক্রমণের হার কম। তাঁরা বাইরে বেরোচ্ছেন কম এবং তুলনায় বেশি হুঁশিয়ার। তবু, এবার পুজোয় তাঁরাই এবার করোনাকে বরণ করে ঘরে তুলবেন। কী ভাবছেন ! গুলিয়ে গেল সবটা ? করোনা এবার ভাইরাস নয়। শাড়ি।
    করোনায় 'না' নয়, তা যদি শাড়ি হয়। ভারতীয় নারী আর বাঙালিনীর শাড়ি পুরুষের চোখে আনম‍্যাচড কম্বিনেশন। বিজ্ঞানী, চিকিৎসকদের অনুবীক্ষণ যন্ত্রের 'মুকুটশোভিত কুহকিনী' করোনা এবার শোভা পাবে বঙ্গললনাদের কোলে, কাঁখালে, আঁচলে। এবার পুজোয় হিট হতে চলেছে করোনা শাড়ি।
    শ্রীরামপুরের এক ব‍ুটিকে ম‍্যানিকিনের গায়ে লেপ্টে থাকা করোনা ভাইরাসের সহর্ষ উপস্থিতি দেখলে কে বলবে এই অদৃশ্য অসুর ছয় মাস ধরে জীবনের সুর, তাল, ছন্দ কেটে দিয়েছে। ফি-বছর পুজোয় এই ব‍ুটিক নতুন ধরনের শাড়ি উদ্ভাবন করে থাকে। বিপণির মালিক শুভাশিস দে জানালেন, "এবছর ব‍্যবসা এত মার খেয়েছে যে বলার কথা নয়। পুজোতেও যে ভালো ব‍্যবসা হবে এমন ভরসা নেই। এই দুশ্চিন্তার মধ্যেই ভাবলাম করোনা এখন ক‍্যাচি ওয়ার্ড। তাই শাড়িতে নতুন নকশা তুলতে করোনা ভাইরাসেই ভর করলাম। মহালয়া থেকে করোনা শাড়ি ক্রেতাদের জন্য বিক্রি শুরু করে বেশ সাড়া মিলছে"। সিল্কের জমিতে এম্ব্রডায়েরিতে নানান কিসিমের নকশা তোলা হয়েছে করোনা শাড়িতে। ভাইরাসের অবয়বের পাশাপাশি শাড়িতে রয়েছে করোনা স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত বার্তা। যেমন ---- ' মাস্ক ছাড়া বাইরে নয়', 'দো গজ কি দূরি রহনা হ‍্যায় জরুরি' এইসব। শেওড়াফুলির শম্পা বসু এই ব‍ুটিক থেকে করোনা শাড়ি কিনে যারপরনাই খুশি। তাঁর কথায়, 'করোনার ভয়ে সিঁটিয়ে থাকতে থাকতে আর ভালো লাগছিল না। পুজো আসছে। মনটা খুব হালকা লাগছে। করোনা এবার বহুচর্চিত বিষয়। করোনা শাড়িও নতুনত্ব বলতে হবে। ভালোই লাগছে। আমি খুশি"। ব‍ুটিকের মালিক শুভাশিসবাবু জানিয়েছেন, কেউ চাইলে এই শাড়ির একটা ট্রায়াল দিয়ে যেতে পারেন। ইতিমধ্যে স্থানীয় কয়েকজন কন‍্যে তা দিয়েছেনও। ক্রেতার পছন্দ মতো নকশায় সামান্য অদলবদলেরও সুযোগ রয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন। পাশাপাশি কোভিড যোদ্ধাদের জন্য ৫ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।