সোমবার, মার্চ 08, 2021

ডিভাইসে ডিসট‍্যান্সিং
ডিভাইসে ডিসট‍্যান্সিং

ডিভাইসে ডিসট‍্যান্সিং

  • scoopypost.com - Aug 27, 2020
  • করোনা সংক্রমণের আবহে সামাজিক দূরত্ব বিধি মানা আবশ‍্যিক। সংক্রমণ ঠেকাতে কমপক্ষে ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রাখার পরামর্শ চিকিৎসক ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। কিন্তু ৬ ফুট দূরত্ব বুঝে ওঠার ক্ষেত্রে ধন্দ তৈরি হতে পারে। বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ ও লকডাউনে বহু মানুষের উদ্ভাবনী ক্ষমতা বেড়ে গিয়েছে। অনেক নতুন কৌশল বা সংক্রমণ ঠেকানো কারিগরি সামনে এসে পড়েছে। ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকার বাসিন্দা নেহা শুক্ল নামের এক কিশোরী ৬ ফুট সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য একটি ডিভাইস উদ্ভাবন করেছেন। একটি সাধারণ টুপি বা ক‍্যাপে একটি মাইক্রোপ্রসেসর লাগানো থাকে এবং তাতে প্রোগ্রামিং করা থাকে। থাকে একটি ৯ ভোল্টের ব‍্যাটারি। ৬ ফুট দূরত্ব লঙ্ঘন হলেই আলট্রাসনিক সেন্সরে তা ধরা পড়ে যায় এবং বাজার অ্যালার্ম বাজিয়ে ব‍্যবহারকারীকে সতর্ক করে দেয়। একাধিক ব‍্যক্তির মধ্যে পারস্পরিক দূরত্ব ৬ ফুটের কম হলেই সেন্সর অ্যাক্টিভ হয়ে আলট্রাসনিক ওয়েভ বা তরঙ্গ পাঠাতে শুরু করে। সেই তরঙ্গে বাজার ভাইব্রেট করতে শুরু করে এবং কম্পনের সঙ্গেই বিপ বিপ আওয়াজ শুরু হয় বাজারে। নেহা এপ্রিল থেকে এই ডিভাইস তৈরি শুরু করেছিলেন। প্রথমে একটি প্রোটোটাইপ বা পরীক্ষামূলক মডেল তৈরি করে বিশেষজ্ঞদের কাছে পাঠিয়েছিলেন। বিশেষজ্ঞরা এবং বিজ্ঞানীরা দূরত্ব বজায় রাখার এই উপকরণটির কার্যকারিতা নিয়ে ইতিবাচক রায় দেওয়ার পর নেহা নিজেও যেমন এই ডিভাইস তৈরি করছেন তেমনই অন‍্য মহিলাদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন। একজনের হাঁচি, কাশি থেকে বাতাসে ছড়ানো ড্রপলেট বা জলকণার মাধ্যমে ছড়ানো নোভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ায়। ডিভাইসটি ৬ ফুট দূরত্ব বজায়ে সহায়ক হলে সংক্রমণের সম্ভাবনা রুখতে অনেকটাই কার্যকর হবে বলে আশা কিশোরী নেহার।