সোমবার, মার্চ 08, 2021

হ্যালোউইন ব্লু মুনের যুগলবন্দি
হ্যালোউইন ব্লু মুনের যুগলবন্দি

হ্যালোউইন ব্লু মুনের যুগলবন্দি

  • scoopypost.com - Sep 19, 2020
  • নিশিরাত বাঁকাচাঁদ আকাশে...। শুনলেই মনটা কেমন উদাস ভালোলাগায় ভরে যায়। তাই না। বাংলা শিল্প সাহিত্যেও চাঁদের একটা বিশেষ জায়গা রয়েছে। ছোটবেলার ছড়া থেকে বড়বেলার প্রেম। চাঁদের বুড়ি থেকে ‘ সোহাগ চাঁদ বদনি ’ র স্তুতি। সেই চাঁদ অপরূপ হয়ে উঠবে অক্টোবরের পয়লা ও শেষদিনে অর্থাৎ ৩১ অক্টোবর। এমাসে দুদিন পূর্ণিমা। একমাসে দুটি পূর্ণিমা হলে দ্বিতীয়টিকে বলা হয় ব্লু মুন। ৩১ অক্টোবর আবার হ্যালোউইন ডে। বেশ একটা গা ছমছমে ব্যাপার! আমাদের ভূত চতুর্দশীর মতো। খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীরা এই দিনটি পালন করেন। তাঁদের বিশ্বাস ওইদিন সন্ত, পবিত্র, তৃপ্ত, অতৃপ্ত আত্মারা ভূলোকে ঘোরাফেরা করেন বলে তাঁদের বিশ্বাস। কিন্তু পূর্ণিমার চাঁদ আর আত্মাদের আনাগোনা ব্যাপারটা অনেকটা তেল আর জলের মতো। কোনটা কোনটার সঙ্গে মেশে না। তবে হ্যালোউইন ডে বলে ব্লু মুন দেখা মিস করবেন না।

    ইংরাজিতে কালেভদ্রে বোঝাতে গিয়ে বলা হয়ে থাকে ‘ওয়ান্স ইন এ ব্লু মুন।’ এবার ৩১ অক্টোবেরর পূর্ণিমাও অনেকটা তাই। কারণ ১৯ বছরে সাতবার এরকম একইমাসে দুটি পূর্ণিমা পড়লেও পৃথিবীর সব প্রান্ত থেকে তা দেখা যায়না। এবার এটাই ঘটবে। শেষবার ১৯৪৪ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় পৃথিবীর সব প্রান্ত থেকে ব্লু মুন দেখেছিল বিশ্ববাসী।