শুক্রবার, মার্চ 05, 2021

ভূমিপূজনে অযোধ্যায় ৩ ঘণ্টা থাকবেন প্রধানমন্ত্রী
ভূমিপূজনে অযোধ্যায় ৩ ঘণ্টা থাকবেন প্রধানমন্ত্রী

ভূমিপূজনে অযোধ্যায় ৩ ঘণ্টা থাকবেন প্রধানমন্ত্রী

  • scoopypost.com - Aug 04, 2020
  • দেশজুড়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিতর্ক, তিনি কী আইসোলেশনে যাবেন? তাঁর ডান-হাত বলে পরিচিত অমিত শাহের কোভিড পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।তারপর থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আইসোলেশনে যাওয়া নিয়ে দেশ জুড়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। অমিত শাহ নিজেও টুইট করে অনুরোধ করেছেন গত কয়েকদিনে যাঁরা তাঁর কাছাকাছি এসেছেন তাঁরা যেন নিজেদের পরীক্ষা করিয়ে নেন প্রয়োজনে কোয়ারান্টাইন বা আইসোলেশনে চলে যান।অমিত শাহের কোভিড পজিটিভ রিপোর্ট আসার আগে তিনি একাধিকবার নরেন্দ্র মোদির কাছাকাছি এসেছেন। ফলে সর্বস্তরে প্রধানমন্ত্রীর আইসোলেশনে যাওয়ার বিষয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। দেশজোড়া এই চর্চার মাঝেও প্রধানমন্ত্রী নিজে এই বিষয়ে একটি শব্দও উচ্চারণ করেন নি।

    এদিকে তাঁর আইসোলেশন বা কোয়ারান্টাইনে যাওয়া নিয়ে মোদির নীরবতার মাঝেই আগামিকাল তাঁর সম্ভাব্য সফর সূচি সামনে এসেছে। আগামিকাল অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমি  পুজো উপলক্ষ্যে তিনি প্রায় তিন ঘন্টা সময় সেখানে কাটাতে পারেন বলেই জানা গেছে।

    কাল সকালে দিল্লি থেকে তিনি বিশেষ বিমানে রওনা দেবেন, দিল্লি থেকে তিনি যাবেন লখনউ।  লখনউ থেকে তিনি কপ্টারে অযোধ্যা যাবেন।সরযু নদীর তীরে কলেজ ময়দানে তৈরি হয়েছে হেলিপ্যাড। সেখান থেকে তিনি প্রথমে যাবেন হনুমানগড়ি মন্দির। সেখানে তিনি মিনিট দশেক পুজো করবেন। এরপর তিনি রামলালা দর্শন করবেন ।

    এরপর তিনি ৪০ কেজির রূপোর ইঁট দিয়ে রামমন্দির নির্মাণের সূচনা করবেন।মূল মঞ্চে তিনি ছাড়া আর মাত্র চারজন তাঁর সঙ্গে থাকবেন। ভূমি পুজো উপলক্ষ্যে মোট ১৭৫ জনকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আমন্ত্রিত এই ১৭৫ জনের মধ্যে ১৩৫ জনই পুরোহিত। পুরো অনুষ্ঠান দূরদর্শনে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। 

    সূত্রের খবর আগামিকাল বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ অযোধ্যা পৌঁছবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভূমি পুজো শুরু হবে বেলা সাড়ে বারোটা নাগাদ। ইতিমধ্যে আমন্ত্রিতদের অনেকেই আসতে শুরু করেছেন। আর এস এস প্রধান মোহন ভাগবত এসে গিয়েছেন। পুরো মন্দির এলাকা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এলাকার নিরাপত্তায় মোতায়ন করা হয়েছে এস পি জি এবং আধা সামরিক বাহিনী। জেলা এবং রাজ্য সীমানন্তে কড়া নজর রাখা হচ্ছে। মূল প্রাঙ্গন ব্যাপকভাবে স্যানিটাইজ করা হয়েছে।