মঙ্গলবার, জানুয়ারী 26, 2021

নজিরবিহীন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আমেরিকায়
নজিরবিহীন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আমেরিকায়

নজিরবিহীন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আমেরিকায়

  • scoopypost.com - Nov 06, 2020
  • এ এক অদ্ভূত অবস্থা। মার্কিন মুলুকের দীর্ঘ রাজনীতিতে এ রকম পরিস্থিতি আগে দেখা যায় নি। এতদিন ধরে ভোট এবং তার গণনা প্রক্রিয়া আগে দেখা যায় নি। ৩ তারিখ ভোট গ্রহণ হয় আমেরিকায়। অবশ্য তার আগে থেকেই বহু আমেরিকান ই-মেলে ভোট দেওয়া শুরু করেন। আর তাই এখন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রধান বিতর্কের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

    এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ভোটের ফলাফল খানিকটা হলেও জো বাইডেনের দিকে হেলে রয়েছে।তাই বলে এ কথা এখনও নিশ্চিত করে বলা যায় না যে শেষ হাসি তিনিই হাসবেন। ইলেক্ট্ররাল ভোটের ফল জো বাইডেন ২৬৪ আর ডোনাল্ড ট্রাম্প ২১৪। মার্কিন ভোটের পদ্ধতি হল ইলেক্ট্ররাল ভোটের ফলেই ঠিক হয় কে হবেন মার্কিনং প্রেসিডেন্ট । মোট ইলেক্ট্ররাল ভোটের সংখ্যা ৫৩৮। সে দিক থেকে দেখতে গেলে জো বাইডেন অনেকটাই এগিয়ে আছেন। তবে এখনও তিনটি প্রদেশের ভোট গণনা বাকি। ট্রাম্পকে জিততে হলে তিনটিতেই জিততে হবে আর বাইডেন যে কোনও একটি রাজ্যে জিতে গেলেই ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হবেন জো বাইডেন।

    ইলেক্ট্ররাল ভোটের সঙ্গে পপুলার ভোটের হিসেব দেখলে দেখা যাচ্ছে জো বাইডেন সেখানে ইতিমধ্যেই  রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন। আমেরিকার রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এ পর্যন্ত আর কেউ এত ভোট পান নি। ইতিমধ্যে জো বাইডেন প্রায় সাত কোটিরও বেশি ভোট পেয়েছেন। আরও অনেক ভোট গোনা বাকি। ফলে সেদিক থেকে জো বাইডেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নয়া রেকর্ড করে ফেলেছেন।২০০৮ এর নির্বাচনে বারাক ওবামাও এত ভোট পান নি।  

    এত করেও এখনো ভোটের ফয়সালা হয়নি। ট্রাম্প শিবির একাধিক গণনা কেন্দ্রের বাইরে তা বন্ধ রাখার দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। বেশ কয়েকটি জায়গায় ডেমোক্রেট এবং রিপাবলিকান সমর্থকদের মধ্যে ছোট খাটো সংঘর্ষ হয়েছে। পুলিশকে সেখানে  হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে। স্বয়ং ডোনাল্ড ট্রাম্প হুমকি দিয়ে রেখেছেন ভোটের হল তাঁর বিরুদ্ধে গেলে তিনি আদালতে যাবেন। নিজের হুমকি মতোই ট্রাম্প শিবির কয়েকটি  ইস্যুতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে। কোথাও ভোট গণনা স্থগিতের দাবি তো কোথাও ই মেল ভোট গ্রাহ্য না করার দাবি । ফলে এ এক অদ্ভূত পরিস্থিতি।

    এই অবস্থার মধ্যেও দুই প্রার্থীর আচরণে বিস্তর ফারাক দেখতে পাচ্ছেন আমেরিকাবাসী। ডোনাল্ড ট্রাম্প যেখানে হার স্বীকারে মোটেই রাজি নন। উলটে তিনি দাবি করতে শুরু করেছেন তিনিই জিতে গেছেন, সেখানে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ৭৮ বছরের জো বাইডেন অনেক বেশি শান্ত এবং স্থির। সমর্থকদের, আমরা জিততে চলেছি এই বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি তিনি শান্তি বজায় রাখার আর্জি জানিয়েছেন। বলেছেন, ভোটে জিতে গেলে আমরা সবাই এক হয়ে কাজ করব। কে নীল কে লাল তা দেখা হবে না। যা আমেরিকানদের মন জয় করে নিয়েছে।