মঙ্গলবার, নভেম্বর 24, 2020

সদ্যোজাতের ছবি বছরের সেরা, বলছে সোশ্যালমিডিয়া
সদ্যোজাতের ছবি বছরের সেরা, বলছে সোশ্যালমিডিয়া

সদ্যোজাতের ছবি বছরের সেরা, বলছে সোশ্যালমিডিয়া

  • scoopypost.com - Oct 16, 2020

  • সবাই মুক্তি চাইছে। কোভিড বিধির জাল থেকে মুক্তি চাইছে বিশ্ববাসী। কবে মিলবে মুক্তি জানা নেই কারুর। আশায় আশায় দিন কাটছে মানুষের। এরই মাঝে বিদ্যুতের ঝলকের মতো দেখা দিচ্ছে আশার আলো। কখনও তা ভ্যাকসিনের সুখবরে কখনও বা অন্যভাবে। যেমন একটি ছবি। এক ঝলক, কিন্তু তাতেই আশার আলো দেখছেন সারা বিশ্বের মানুষ। কেউ তাকে আশার আলো বলছেন কেউ বলছেন ভবিষ্যতের প্রতীক।

    ছবিটা কিন্তু একেবারে টাটকা নয়। কিছুদিন আগের। তাতে কী। তাকেই আগামির প্রতীক বলে মনে করছেন নেট নাগরিকরা। ছবি সামনে আসতে ভাইরাল হতে সময় নেয়নি। কয়েকদিনের মধ্যেই পছন্দের সংখ্যা ছাড়িয়ে গিয়েছে সাড়া পঁয়ত্রিশ হাজারেরও বেশি। শুধু কি পছন্দ? তার সঙ্গে যে সব মন্তব্য আসছে সেসবও এই কোভিড আক্রান্ত বিশ্বকে ভরসা যোগাচ্ছে।

    কেউ লিখছেন এটাই ২০২০র সেরা ছবি। কেউ লিখছেন ভবিষ্যতের প্রতীক এই ছবি। কেউ লিখেছেন আমার দেখা ২০২০র সবচেয়ে সুন্দর ছবি। আশাকরি আমরা সমস্ত কিছু থেকে খুব তাড়াতাড়ি মুক্তি পাব।

    করোনাগ্রস্ত বিশ্বে মানুষ এখন বিভিন্ন ঘেরাটোপের জীবন কাটাচ্ছেন। প্রথমত খুব দরকার না হলে বাড়ির বাইরে যাচ্ছেন না কেউ। আর বাইরে বেরিয়েও কি নিস্তার আছে। স্যানিটাইজার নাও, মুখে মাস্ক লাগাও, পারলে মাথা ঢেকে রাখ, ভীড় এড়িয়ে চল। হাজারও নিষেধের বেড়াজাল। প্রায় আটমাস ধরে এই নিষেধের মধ্যে জীবন কাটিয়ে হাঁপিয়ে উঠেছে মানুষ। এবার মুক্তি চাইছে। তাই এই ছবিকেই আগামি দিনের প্রতীক বলে মনে করছেন সবাই। আরে হ্যাঁ, যে ছবি নিয়ে এত কথা সেটা কী তাই তো বলা হল না।

    ছবিটা ইউ এ ইর। ডাক্তার সমীর শোয়ব এক সদ্যোজাতকে হাতে ধরে রেখেছেন। আর সেই শিশু তার ছোট্ট হাত দিয়ে ডাক্তারের মুখের সার্জিক্যাল মাস্ক খুলে ফেলছে। সদ্যোজাতের এই কীর্তি দেখে হাসি আর ধরে না ডাক্তারের। সেই ছবি তিনি পোস্ট করেন সোশ্যালমিডিয়ায়। মুহূর্তেই তা ভাইরাল, সঙ্গে নানা আশাব্যাঞ্জক মন্তব্য।  

    শুধু নেটনাগরিকরাই নন, সারা বিশ্বের মানুষ চাইছেন এই ছবিই যেন সত্যি হয়। গত মার্চ মাসেও এই ধরণের এক ছবি মানুষের  মন কেড়ে নিয়েছিল। ইতালিতে এক সদ্যোজাতের ন্যাপিতে লেখা ছিল- ‘আন্দ্রে তুত্তো বেনে’ যার মানে, ‘সব কিছুই ঠিক হয়ে যাবে’।