বুধবার, মে 12, 2021

জলহস্তী যখন সরকারের মাথা ব‍্যথা
জলহস্তী যখন সরকারের মাথা ব‍্যথা

জলহস্তী যখন সরকারের মাথা ব‍্যথা

  • scoopypost.com - Jan 20, 2021
  • অত্যন্ত নিরীহ তৃণভোজী প্রাণী জলহস্তী। কাজ বলতে, সারাদিন জলে গা ডুবিয়ে ঘাসপাতা খেয়ে বিশাল বপু নিয়ে গুটি গুটি হাঁটা কিংবা বিরাট হাঁ মুখ খুলে গুটিকয় হাই তুলে নেওয়া। কিন্তু নিরীহ এই প্রাণীটিই এখন কলম্বিয়া সরকারের মাথা ব‍্যথার কারণ। কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া পাবলো এস্কোবারের ছিল বিচিত্র শখ। ৭০০০ একর জমিতে ব‍্যক্তিগত চিড়িয়াখানা গড়ে তুলেছিলেন। ১৯৯৩ সালে অবশ্য ওই মাদক মাফিয়া পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারান। তবে বর্তমানে তাঁর চিড়িয়াখানার জলহস্তীগুলোর কপালেও মালিকের মতো গুলি খেয়ে মৃত্যু আছে কিনা তা নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে সেদেশের নানা মহলে।
    পাবলোর চিড়িয়াখানার সমস্ত পশুপাখির কোথাও না কোথাও পুনর্বাসন হয়ে গিয়েছে। কিন্তু আপাত নিরীহ জলহস্তীগুলো মালিক পাবলোর মৃত্যুর পর পুনর্বাসনকারীদের হাতে ধরা না দিয়ে বেমালুম পালিয়ে যায়। এখন তাদের কয়েকজন সন্তান সন্ততি নিয়ে রাস্তায় যত্রতত্র ঘুরে বেড়াচ্ছে। রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো জলহস্তীর সংখ্যা প্রায় ১০০। জলহস্তীর জন্মহার গোটা বিশ্বের চিন্তার কারণ। অতি দ্রুত এই প্রাণীটির সংখ্যা বাড়ে। মাদক মাফিয়া পাবলো এস্কোবারের চিড়িয়াখানার জলহস্তীগুলো এত দ্রুত হারে সংখ্যায় বাড়ছে যে মনে করা হচ্ছে ২০২৪ সালে তা ১৫০০ হবে। বাস্ততন্ত্রবিদ কাসেলব্লাঙ্কো মার্টিনেজ জলহস্তীগুলোকে মেরে ফেলার প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, " ওদের জন্মহার নিয়ন্ত্রণে কোনও ফন্দি কাজ করছে না।" সরকারের পরিবেশ দফতরের এক আধিকারিককে উদ্ধৃত করে নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে, ওই জলহস্তীদের জননাঙ্গ ছেদ করা হতে পারে। পরিবেশ বিশেষজ্ঞ ডেভিড এসেভেরি লোপেজের মতে, জলহস্তীগুলো বাস্তুতন্ত্রের দখল নেওয়ার আগেই জননাঙ্গ ছেদ কার্যকর করা প্রয়োজন। অন‍্যদিকে অনেকেই জলহস্তীগুলোর জননাঙ্গ ছেদের পরিবর্তে একেবারে মেরে ফেলার পক্ষে মত দিয়েছেন।