রবিবার, অক্টোবর 25, 2020

কাচের মস্তিষ্ক!!!
কাচের মস্তিষ্ক!!!

কাচের মস্তিষ্ক!!!

ফটো ক্রেডিট : Sciencealert.com

  • scoopypost.com - Jan 24, 2020
  • ভিসুভিয়াসের অগ্ন্যুৎপাতে কাচে পরিণত হয়েছে মানুষের মস্তিষ্ক। সম্প্রতি ইটালির নেপলে গবেষণা চালাতে গিয়ে এমনই সত্যের সম্মুখীন হয়েছেন গবেষকরা।কাচে পরিণত কালো রংয়ের জিনিসটি যে মানুষেরই মস্তিষ্ক বোঝার পর বিস্মিত সকলেই।

    খ্রিষ্টের জন্মের ৭৫ বছর পর ভিসুভিয়াস আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল রোমান শহর পম্পেই ও হারকিউলানিয়াম।এই হারকিউলানিয়ামই এখন নেপল। দীর্ঘদিন ধরে এখানে গবেষণা চালাচ্ছেন প্রত্নতত্ত্ববিদ ও নৃতত্ত্ববিদরা।তাঁরাই খুঁজে পেয়েছন কাচে পরিণত হওয়া মস্তিষ্ক। সম্প্রতি নিউ ইংল্যান্ডের জার্নাল অফ মেডিসিনে এ নিয়ে একটি লেখা প্রকাশিত হয়েছে।আর তাতেই সামনে এসেছে বিষয়টি।

    ইউনিভার্সিটি অফ নেপলস ফেডেরিকো ২-এর ফরেনসিক অ্যানথ্রপোলজিস্ট ড. পিয়ের পাওলা পেট্রন বলেন, এই নুমনা বিরলতম।তাঁর কথায়, বিশ্বে প্রথম এই দৃষ্টান্ত পাওয়া গেল।গবেষকদের অনুমান, মস্তিষ্কটি কোনও ২০ বছরের আশপাশের যুবকরে। তার দেহটি পাওয়া গিয়েছে কাঠের খাটের ওপর। শরীর ছাই হয়ে গিয়েছে।হারকিউলানিয়ামের বাসিন্দা ছিল সে। প্রচণ্ড তাপে সঙ্গে সঙ্গে তার মৃত্যু হয়।গবেষকদের পর্যবেক্ষণ, অগ্ন্যুৎপাতের ফলে সেখানে তাপমাত্রা ৫২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছে গিয়েছিল।

    গবেষকদের বক্তব্য, প্রচণ্ড গরমে যখন কোনও কিছু জ্বলে যায় আর দ্রুত ঠাণ্ডা হয়ে যায় তখনই কোনও কিছু এমন কাচে পরিণত হতে পারে। এক্ষেত্রেও তেমনটাই হয়েছে।এক্ষেত্রে প্রচণ্ড তাপে শরীরে আগুন ধরে যায়, মাংসবেশি-সহ নরম কোষকলা সমস্ত বাষ্পীভূত হয়ে যায়।কাচের মতো জিনিস পরীক্ষা করে প্রোটিন ও ফ্যাটি অ্যাসিডের অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে। যা থেকে গবেষকদের বক্তব্য, ওটা মস্তিষ্কই।তবে এই ধরনের কাচে পরিণত হওয়া কোনও কিছু ওই জায়গা থেকে আর পাওয়া যায়নি।