শনিবার, মার্চ 06, 2021

রাণীর সঙ্গে যৌনসম্পর্কে কোটিপতি রক্ষী
রাণীর সঙ্গে যৌনসম্পর্কে কোটিপতি রক্ষী

রাণীর সঙ্গে যৌনসম্পর্কে কোটিপতি রক্ষী

  • scoopypost.com - Nov 25, 2020
  • রাজকীয় কেচ্ছা। রাণীর সঙ্গে তুমুল যৌনসম্পর্ক দেহরক্ষীর। আর দেহরক্ষীকে খুশি রাখতে এবং একইসঙ্গে রাজবাড়ির কেচ্ছা কেলেঙ্কারি চাপা দিতে নগদ অর্থ ও উপহার দিয়ে মুখ বন্ধ করা।
    দুবাইয়ের রাজা শেখ মহম্মদ আল মখতুনের ষষ্ঠ স্ত্রী রাণী হায়া। রাজপরিবারে রাজা, রাণী রাজপুত্র, রাজকন্যা সকলের ব‍্যক্তিগত দেহরক্ষী থাকা দস্তুর। রাণী হায়ার বয়স ৪৬। এই বয়সে সাধারণ নারীরা বিগত যৌবনা হয়ে পড়েন। কিন্তু রাণী বলে কথা। তাঁর চোখ ধাঁধানো সৌন্দর্যে যৌবন বিগত হয়েছে কোনওভাবে বলা যাবে না। এদিকে তাঁর ব‍্যক্তিগত দেহরক্ষী রাসেল ফ্লাওয়ার্স ৩৭ বছরের পেটানো চেহারার যুবক। রাণী হায়া তাঁর প্রেমে পড়লেন। শুরু হল দুজনের শারীরিক সম্পর্ক। চলে তুমুল যৌনতা। রাজপরিবারের দস্তুর দেহরক্ষী, দাসী, কর্মীদের অকাতরে উপহার বিলানো, বখশিশ দেওয়া। রাণী হায়া রাসেলকে কী কী উপহার দিয়েছেন জানলে চোখ কপালে উঠবে। মেইল অনলাইন জানিয়েছে, শুধুমাত্র নগদ অর্থ দিয়েছেন ১.২ মিলিয়ন ইউরো। উপহারের তালিকায় রয়েছে একটি ভিন্টেজ শটগান, অপূর্ব কারুকাজ করা সিগার রাখার হিউমিডর। রাসেলের সিগারের দামই শুধু কয়েক হাজার পাউন্ড। রাসেলের গাড়ির জন্য রীতিমতো বড়সড় খরচ করে বিশেষ সৌভাগ্যসূচক নেমপ্লেট লাগিয়ে দিয়েছিলেন। তাতে লেখা ছিল RU55ELLS। এছাড়াও ফ্লাওয়ার্স পরিবারের জন্য রাণী দিয়েছিলেন চুণী বসানো অত‍্যন্ত মূল্যবান একটি আংটি। রাসেল রাণীর থেকে নগদ টাকা অর্থ, উপহার পেয়ে খুশি থাকলেও তাঁর স্ত্রী মোটেও ভালোভাবে নিতে পারেননি। ফ্লাওয়ার্সের স্ত্রীর অভিযোগ, তাঁর স্বামীকে প্রলোভন দেখিয়ে যৌনসম্পর্ক তৈরি করতে বাধ্য করেছেন রাণী হায়া। রাণী হায়া এবং রাজা শেখ মহম্মদ আল মখতুনের বিবাহবিচ্ছেদের মামলা চলছে লন্ডন হাইকোর্টে। সন্তানদের কাস্টডি নিয়ে রাজা - রাণীর মধ্যে টানাপোড়েনের সময় রাণীর তাঁর ব‍্যক্তিগত দেহ‍রক্ষী ফ্লাওয়ার্সের গোপন শারীরিক সম্পর্ক সামনে এসা পড়ে।

এছাড়াও পড়ুন: রাজা রানী যৌনতা সেক্স