রবিবার, অক্টোবর 25, 2020

দূষণ থেকে হাজারো রোগ
দূষণ থেকে হাজারো রোগ

দূষণ থেকে হাজারো রোগ

  • scoopypost.com - Nov 28, 2019
  • দেশে এইমূহূর্তে বায়ুদূষণের সবচেয়ে বেশি প্রভাব দেশেরই রাজধানীতে। তবে শুধু দিল্লিই নয়, এই সমস্যা কিন্তু গোটা ভারতেরই। স্কাইমেট নামক এক বেসরকারি সংস্থার রিপোর্টে সম্প্রতি ধরা পড়েছে দেশের এই দূষণচিত্র। বিশ্বের অন্যান্য বড় শহরগুলিতেও দূষণ নিয়ে গবেষণা চালায় স্কাইমেট।রিপোর্ট বলছে, দিল্লিতে দূষণের মাত্রায় সারা পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি। দিল্লিতে বাতাসের গুণগত মান(একিউআই) ৫২৭, যা অত্যন্ত বিপজ্জনক বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। পিছিয়ে নেই কলকাতাও। কলকাতায় একিউআই ১৫৩। সারা বিশ্বের মধ্যে, বায়ুদূষণের নিরিখে কলকাতার স্থান পঞ্চম। র‍্যাঙ্কিং-এ প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, মুম্বই রয়েছে নয় নম্বরে। ভারতের তিনটি বড় শহরেই বাতাসের মান অত্যধিক খারাপ। দূষণের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ প্রভাবে শরীরে বাসা বাঁধছে বহু রোগ। দেখা দিচ্ছে  শ্বাসকষ্ট, চোখ ও ত্বকের সমস্যা।চিকিৎসকদের মতে, বায়ুদূষণ এড়াতে, বিশেষ করে যাঁদের শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানির মত রোগ আছে, তাঁদের N-95 মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। এতে .5 মাইক্রন পর্যন্ত ধুলিকণা থেকে বাঁচা যাবে। চোখের ক্ষতি যেমন কর্নিয়ার সমস্যা, ছানি, গ্লুকোমা রোধ করতে গাড়ি চালানোর সময় অবশ্যই কভার্ড আই গ্লাস পরা উচিৎ।চোখের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে, দিনের শেষে ঠান্ডা জলে চোখ ধোওয়া ভাল অভ্যেস। চামড়ায় সংক্রমণ, ব়্যাশ বেরোন বা চুলে খুশকির সমস্যার মোকাবিলায় প্রথম থেকেই অতিরিক্ত শস্তা প্রসাধন ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। ভাল করে সাবান ও শ্যাম্পু দিয়ে স্নান করে পুরো শরীরকে যথাসম্ভব ঢেকে বাইরে বেরোতে হবে। দূষিত পরিবেশে উৎপন্ন শাকসবজি ও অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য খেয়ে পেটের রোগ হওয়াও অস্বাভাবিক নয়। বাড়ছে আন্ত্রিকের মত রোগও।পরিবেশ দূষণের প্রভাব পড়ে লিভার, কিডনি, হার্টেও। তাই বাজার থেকে কিনে আনা শাকসবজি বা কাঁচা মাল সবসময় কেটে পরিষ্কার জলে আধঘন্টা ডুবিয়ে রাখতে হবে। খাবার ভাল করে সিদ্ধ করা পরেই তা খেতে হবে। মশলাপাতি ব্যবহারের ক্ষেত্রেও সতর্ক থাকা দরকার। দূষণ-দৈত্যকে হারাতে সচেতনতার সঙ্গে চাই উদ্যোগও।