শুক্রবার, অক্টোবর 30, 2020

অ্যাম্বুল্যান্সের জন্যে 'গ্রিন করিডর'
অ্যাম্বুল্যান্সের জন্যে 'গ্রিন করিডর'

অ্যাম্বুল্যান্সের জন্যে 'গ্রিন করিডর'

  • scoopypost.com - Dec 10, 2019
  • কলকাতা শহরের যানযটে প্রায়শই চোখে পরে আটকে আছে অ্যাম্বুল্যান্স। যানযটে আটকে রোগী। এবার যানযট এড়িয়ে অ্যাম্বুল্যান্সকে নির্বিঘ্নে হাসপাতাল পর্যন্ত পৌঁছে দিতে উদ্যোগী হল রাজ্য। শহরের রোগী নিয়ে যাওয়া অ্যাম্বুল্যান্সের জন্যে রাজ্যের প্রস্তাব গ্রিন করিডরের। কলকাতা পুলিশের সহযোগীতায় এমনই উদ্যোগ নিতে চলেছে নবান্ন।

    বিগত কয়েক মাসে স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে বেশকিছু অ্যাম্বুল্যান্সকে গ্রিন করিডর দিয়ে যাতায়াতের ব্যবস্থা করে দিয়েছে কলকাতা পুলিশ।  প্রতিটা অ্যাম্বুল্যান্সকে গ্রিন করিডরের সুবিধা দিতে নতুন বছরেই আসতে চলেছে নয়া অ্যাপ, জানাল রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর। এই অ্যাপের পিছনে সহযোগিতা করবে রাজ্যের পরিবহণ, পুলিশ, স্বাস্থ্য ও রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ। ইতিমধ্যেই এই অ্যাপ তৈরিতে সবুজ সংকেত দিয়েছে নবান্ন। রাজ্য সরকারসূত্রে খবর যানযটে যাতে অ্যাম্বুল্যান্স আটকে না পড়ে তার জন্যে নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। সেই নির্দেশের পরেই একজোট হয়ে কাজ শুরু করবে চারটি দফতর। 

    কিভাবে কাজ করবে এই অ্যাপ?

    • লোকেশন ট্র্যাকিং প্রযুক্তি বিশিষ্ট এই অ্যাপ থাকবে কলকাতা পুলিশ সহ চার দফতরেই
    • অ্যাম্বুল্যান্সের চালক এবং কলকাতা পুলিশের কন্ট্রোল রুমে থাকবে এই অ্যাপ
    • প্রাথমিক ভাবে কলকাতার কিছু সরকারি হাসপাতালকে নিয়ে চালু করা হবে অ্যাপের ব্যবস্থা
    • বাড়ি থেকে কোন হাসপাতালে রোগীকে নিয়ে যাওয়া হবে তা অ্যাপে নথিভুক্ত করবে অ্যাম্বুল্যান্স চালক
    • কলকাতা পুলিশের কন্ট্রোল রুম ট্রাফিকের থেকে সুবিধাজনক রুট জেনে তা আপলোড কেরে দেবে অ্যাপে
    • রোগী নিয়ে বেরোনোর সময় অ্যাপে দেখা যাবে অ্যাম্বুল্যান্সের গতিবিধি। সেই অনুযায়ী সজাগ থাকবে কলকাতা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ
    • অ্যাম্বুল্যান্স যখনই রাস্তায় বেরোবে লোকেশন দেখে সেই রাস্তাকে গ্রিন করিডর করে দেওয়া হবে।
    • অ্যাম্বুল্যান্সের যাত্রাপথে অন্যান্য যানবাহনের গতিবিধি আগে থেকেই ঠিক করে রাখা হবে। ফলে কোথাও আটকাবে না অ্যাম্বুল্যান্স
    • অ্যাম্বুল্যান্সের যাত্রা পথে এমনকি হাসপাতালের প্রবেশের সময়েও হুটার বাজানোর প্রয়োজন পরবে না
    • এই অ্যাপে রোগীর পরিজনের নম্বর এবং চালকের নম্বর সংযুক্ত করা হবে। অ্যাম্বুল্যান্স রাজপথে নামলে তা পৌঁছে যাবে স্থানীয় থানার কাছে
    • পরীক্ষামূলকভাবে চালু হলেও আগামী বছরে রাজ্যের প্রত্যেক হাসপাতালে চালু করা হবে এই ব্যবস্থা