রবিবার, এপ্রিল 18, 2021

হু ফাউন্ডেশনের প্রথম প্রধান এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত
হু ফাউন্ডেশনের প্রথম প্রধান এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত

হু ফাউন্ডেশনের প্রথম প্রধান এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত

  • scoopypost.com - Dec 08, 2020
  • বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অধীন হু ফাউন্ডেশনের প্রথম প্রধান হচ্ছেন এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত । অনিল সোনি। পয়লা জানিয়ারি থেকে হু ফাউন্ডেশনের সি ই ও পদের দায়িত্ব নিচ্ছেন। বিশ্বের প্রথম সারির স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ হিসবে পরিচিত অনিল এর আগে বিল গেটস এবং মিরান্ডা গেটস ফাউন্ডেশনেও দায়িত্বের সঙ্গে কাজ করেছেন। এবার থেকে তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হয়ে কাজ করবেন।

    সোনি এখন থেকে হুএর বিভিন্ন উদ্ভাবনী প্রকল্পে আরও বেশি বিনিয়োগ এবং তথ্য-প্রমাণ নির্ভর উদ্যোগে গুরুত্ব দেবেন। বিশ্ব মানবের সুস্বাস্থ্য এবং উন্নতির জন্যই কাজ করবেন তিনি।

    এ বছরেই এই হু ফাউন্ডেশনের শুরু। হুর পাশাপাশি একই লক্ষ্যে কাজ করে এই সংস্থা। এদের সদর দপ্তর জেনেভায়। সারা বিশ্ব জুড়ে যে সব স্বাস্থ্য সমস্যায় মানুষ বেশি জর্জরিত হন সেগুলি নিয়েই এই ফাউন্ডেশন কাজ করবে।

    বর্তমানে সোনি ভিয়াত্রিস নামে এক স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধানের দায়িত্বে রয়েছেন। সেখান থেকেই তিনি হু ফাউন্ডেশনে যোগ দেবেন। হুর ডিরেক্টর জেনারেল ডঃ তেদরস এ গেব্রিয়াস বলেছেন, সোনি  বিশ্ব স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের একজন ‘প্রমাণিত উদ্ভাবক’ ।  এইচআইভি, এইডস সহ একাধিক সংক্রমক ব্যাধি নিয়ে তিনি প্রায় দু দশক ধরে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, সোনিকে তিনি প্রথম দেখেন যখন তিনি  ক্লিন্টন হেলথ অ্যাকসেসের হয়ে ইথিয়পিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে একযোগে কাজ করছিলেন।সেখানে তিনি হুএর স্বাস্থ্য শিবিরগুলি শক্তিশালী করার কাজ করছিলেন।গেব্রিয়াস বলেছেন টিমকে নেতৃত্ব দেওয়ায় অসাধারণ দক্ষতা রয়েছে অনিল সোনির।   

    সোনি নিজের এই নতুন নিয়োগ নিয়ে বলেছে, সারা বিশ্ব এখন এক জটিল জনস্বাস্থ্য সমস্যায় রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে কোভিডের সঙ্গে লড়াই করার পর রোগ প্রতিরোধে  কিছু ভ্যাকসিনের সাফল্য সামনে এসেছে। তবে কোভিড থেকে মুক্তির পথে অনেক বেশি বিনিয়োগের প্রসার দরকার।বিভিন্ন প্রকল্পেই এটা দরকার।তিনি বলেন এই সংস্থা হুর মাধ্যমে  সারা বিশ্বের স্বাস্থ্য সমস্যা নিয়ে বিশ্বব্যাপী কাজ করে। হুকে এইসংস্থা আরও বেশি শক্তিশালী করবে।

    সোনির প্রশংসা করেছেন হু ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর টমাস জেলথার। তিনি বলেন, সোনি বিশ্বের জনস্বাস্থ্য বিষয়ে একজন অত্যন্ত অভিজ্ঞ এবং যোগ্য নেতা। তিনি বলেন, ভিয়াত্রিসে কাজ করার সময়ই সোনি এইচআইভি, এইডস এবং যক্ষা প্রসার রোধে খুব ভালো কাজ করেছেন।সেখানেই তিনি রোগের ওষুধ প্রয়োগ  থেকে শুরু করে তার চিকিৎসা সব বিষয়েই উল্লেখযোগ্য কাজ করেছেন।