সোমবার, নভেম্বর 30, 2020

ইঞ্জেকশনে ব্যথা নয়, আইআইটি আনছে মাইক্রোনিডল
ইঞ্জেকশনে ব্যথা নয়, আইআইটি আনছে মাইক্রোনিডল

ইঞ্জেকশনে ব্যথা নয়, আইআইটি আনছে মাইক্রোনিডল

  • scoopypost.com - Aug 29, 2020
  • ইঞ্জেকশন দেখলেই আঁতকে ওঠেন এমন অনেকেই রয়েছেন। বাকিরা ইঞ্জেকশনে ভয় না পেলেও, ছুঁচ ফোটানোর ব্যাথা ভোগ করেন। শরীরে ওষুধ প্রয়োগের জন্য ইঞ্জেকশন অন্যতম মাধ্যম। এবার এই ইঞ্জেকশন ভীতি দূর করতে গবেষণায় নতুন দিশা দেখালেন খড়গপুর আইআইটির গবেষকরা। তাঁরা এমন এক সূচ তৈরি করেছেন যা চুলের থেকেও সরু। শুধু মাইক্রো নিডল নয় তারসঙ্গে ব্যবহারযোগ্য মাইক্রো পাম্পও তৈরি করেছেন দেশের অন্যতম সেরা প্রতিষ্ঠান আইআইটি খড়গপুরের ইলেকট্রনিকস ও ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গবেষকরা। এই সূক্ষ্ম সূচের মাধ্যমে যখন ওষুধ প্রয়োগ হবে বা প্রতিষেধক দেওয়া হবে তখন লোকে কার্যত ব্যাথা বুঝবেনই না। কোভিড পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিনেশনের জন্য এই মাইক্রোনিডল অত্যন্ত কার্যকরী হয়ে উঠবে বলে মনে করছেন গবেষকরা।


    আইআইটি খড়গপুরের অধ্যাপক তরুনকান্তি ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, এই সূক্ষ্মসূচ যে কোনও ওষুধ প্রয়োগেই উপযোগী হবে। ভেঙে যাবে না। শুধু তাই নয় এর সঙ্গের মাইক্রো পাম্পটিও দ্রুতগতিতে শরীরে ওষুধ প্রয়োগে সাহায্য করবে। ভবিষ্যতে কোভিড-১৯ ও ক্যান্সারের চিকিত্সায় ওষুধ প্রয়োগে এই সূচ ব্যবহার হবে।



    এই কাজে কেন্দ্রীয় সরকারের ইলেকট্রনিক্স ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগ সহায়তা করেছে। ইতিমধ্যেই প্রানীদের ওপর পরীক্ষা সফল  হয়েছে। তবে এবার গবেষকরা রোগীদের ওপর পরীক্ষা করবেন।