বুধবার, নভেম্বর 25, 2020

রিলায়েন্সের হাতে নিষিদ্ধ চিনা অ্যাপ টিকটক
রিলায়েন্সের হাতে নিষিদ্ধ চিনা অ্যাপ টিকটক

রিলায়েন্সের হাতে নিষিদ্ধ চিনা অ্যাপ টিকটক

  • scoopypost.com - Aug 13, 2020
  • বিজেপি ঘনিষ্ঠ শিল্পগোষ্ঠী মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ কিনতে চলেছে নিষিদ্ধ চিনা অ্যাপ ' টিকটক '। টিকটকের মালিক সংস্থা বাইটড‍্যান্সের সঙ্গে ইতিমধ্যে একপ্রস্থ আলোচনাও হয়ে গিয়েছে। জুলাই মাসে এই আলোচনা হলেও চুক্তি অবধি গড়াতে এখনও কিছুটা দেরি আছে। তবে মুকেশ আম্বানির সংস্থা যে টিকটক কিনতে আগ্রহী তা জানা গিয়েছে প্রযুক্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইট টেকক্রাঞ্চ। এক সূত্রের তথ্যের ভিত্তিতে ওই ওয়েবসাইটে এই দাবি করা হয়েছে। যদিও টিকটক বা ওই অ্যাপের মালিক সংস্থা বাইটড‍্যান্স এবং রিলায়েন্সের তরফে এব‍্যাপারে মুখ খোলা হয়নি।
    দেশের সার্বভৌমত্ব, সংহতি, প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তা, শৃঙ্খলার পক্ষে বিপজ্জনক উল্লেখ করে ৫৯ টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করে। অভিযোগ, টিকটক সহ এই চিনা অ্যাপগুলি ব‍্যবহারকারীদের ব‍্যক্তিগত তথ্য বিদেশে পাচার করত। যদিও টিকটকের পক্ষে তা অস্বীকার করে দাবি করা হয়েছিল, ভারতীয় আইন মেনে ব‍্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষা ও গোপনীয়তা রক্ষা করে তারা। ভারতে নিষিদ্ধ হওয়ার পর আমেরিকাতেও নিষিদ্ধ হয়েছে টিকটক। তবে টিকটকের মার্কিন পরিচালনার ভার নিতে আগ্রহী মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফটের সিইও সত্য নাদেল্লা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে একথা ইতিমধ্যে জানিয়েছেন। তবে গোটা বিষয়টি ট্রাম্প প্রশাসনের অনুমোদনের উপর নির্ভর করছে।
    ভারতে টিকটক ব‍্যবহারকারীর সংখ্যাটা ছিল প্রায় ২০ লাখের মতো। এদেশে সংস্থার কর্মী রয়েছে প্রায় ২০০০। যদিও ভারতে টিকটক নিষিদ্ধ হওয়ার পরেও কোনও কর্মীর চাকরি যাবে না বলে সংস্থার ওয়েবসাইটে আশ্বস্ত করেন টিকটকের সিইও তথা বাইটড‍্যান্সের চিফ অপারেশন অফিসার কেভিন মায়ার। তিনি বলেছিলেন, " টিকটকের উদ্দেশ্য ছিল ইন্টারনেট দুনিয়ায় গণতন্ত্র আনা যাতে আমরা অনেকটাই সফল। আমরা এই মুহূর্তে লগ্নিকারীদের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছি। ভারতীয় আইন মেনে টিকটক ব‍্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষিত ও গোপন রেখেছি আমরা। আগামী দিনেও তা বজায় থাকবে। " সংস্থার ওয়েবসাইটেই টিকটকের সিইও বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে জানিয়ে ভারতে নিষিদ্ধ টিকটক হস্তান্তরের সম্ভাবনা উস্কে দিয়েছেন। মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স টিকটক কিনে নিলে দেশের সার্বভৌমত্ব, সংহতি, প্রতিরক্ষা, সুরক্ষা ও শৃঙ্খলার সঙ্গে আপস হবে কিনা সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হবে কেন্দ্রীয় সরকারকে।

এছাড়াও পড়ুন: রিলায়েন্স টিকটক চিন ভারত