বুধবার, মে 12, 2021

এবার রিংয়েই সময় যুদ্ধে সব ফোনের দ্বৈরথ
এবার রিংয়েই সময় যুদ্ধে সব ফোনের দ্বৈরথ

এবার রিংয়েই সময় যুদ্ধে সব ফোনের দ্বৈরথ

  • scoopypost.com - Oct 06, 2019
  • জিও তো অ্যায়সেই জিও! বাণিজ্যিক প্রতিযোগিতার ঘোড়দৌড়ে ঘোল খাইয়ে ছাড়ছে প্রায় সব কটি সমগোত্রীয় কোম্পানীকেই। উপায়ন্তর না পেয়ে সবাই জিওকেই অনুসরণ করতে বাধ্য হল।   জিও-র বাণিজ্যদর্শন মেনে এবার এয়ারটেল, ভোডাফোন আইডিয়া। আউটগোয়িং কলের রিং ডিউরেশন কমিয়ে দিল। ইতিমধ্যেই এয়ারটেলের তরফে ডিউরেশন কমিয়ে ২৫ সেকেন্ড করার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (ট্রাই)-কে। এয়ারটেল চিঠি দিয়ে ট্রাইকে জানিয়েছে, বার বার বিষয়টি জানিয়েও কোন সুরাহা হয়নি, কল ডিউরেশন ২৫ সেকেন্ডেই রেখেছে জিয়ো। সুতরাং আর্থিক লোকসান কমাতে একই পথে হাঁটতে হচ্ছে এয়ারটেলকেও।

    পূর্বে আপনার ফোনে কল এলে রিসিভ করার জন্য ৪৫ সেকেন্ড সময় পেতেন, অর্থাই ৪৫ সেকেন্ড ধরে রিং বাজত। এয়ারটেলের অভিযোগ,  জিও সেই রিং ডিউরেশন কমিয়ে ২৫ সেকেন্ড করে দেয়। এরপর সব বড় মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলি বৈঠকে সর্বসম্মতভাবে স্থির করে যে, রিংয়ের সময়সীমা সকলের ক্ষেত্রে ৩০ সেকেন্ড করা হবে। সকলের অভিযোগ,  জিও সেই সিদ্ধান্তও অগ্রাহ্য করে আরো ৫ সেকেন্ড রিং ডিউরেশন কমিয়ে ২৫ সেকেন্ডই চালিয়ে যাচ্ছে। এ বিষয়ে নির্দিষ্ট অভিযোগ জানানো সত্ত্বেও ট্রাই কোনও রকম পদক্ষেপ নেয়নি বলে অভিযোগ এয়ারটেলের। ফলে বাধ্য হয়ে এয়ারটেলও ক্ষতির পরিমাণ কমাতে রিংয়ের সময়সীমা কমিয়ে দিল।

    এয়ারটেলের যুক্তি, যখন জিওর নম্বর থেকে অন্য কোনও নেটওয়ার্কে ফোন করা হচ্ছে, সেক্ষেত্রে ২৫ সেকেন্ড রিং হওয়ার ফলে অনেক সময় ফোন রিসিভ করার আগেই কেটে যাচ্ছে। বাধ্য হয়ে মিসড কল দেখে ঘুরিয়ে ফোন করতে হচ্ছে তাঁদের গ্রাহকদের। আর এই ভাবেই জিও আউটগোয়িং কলকে ইনকামিং কলে রূপান্তর করাতে বাধ্য করছে। আর ইনকামিং কলের জন্য জিও-কে অযথা গুণাগার দিতে হচ্ছে এয়ারটেল, ভোডাফোন আইডিয়াকে। এইভাবে প্রচুর আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে তাঁদের। যদিও জিও-র দাবি, গোটা  বিশ্ব জুড়ে যে রিংয়ের সময়সীমা আছে তা মাত্র ১৫-২০ সেকেন্ড। সেখানে তাঁরা অতিরিক্ত ১০ সেকেণ্ড বেশীই দিচ্ছেন।

    এদিকে রিংয়ের সময়সীমার যুদ্ধে জড়িয়ে পড়া অন্য অপারেটরদের ট্রাই পরামর্শ দিয়েছে, তারা যেন আপাতত একটি গ্রহণযোগ্য সমাধান খুঁজে বের করে নেন। সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানাচ্ছে, ট্রাইয়ের তরফে জানা গিয়েছে, গোটা বিষয়টি নিয়ে আগামী ১৪ অক্টোবর সব পক্ষকে নিয়ে একটি বৈঠকে হবে। সেখানে ট্রাই ছাড়াও সবকটি সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানিও হাজির থাকবে। সেই বৈঠকেই একটি সর্বসম্মত সমাধানের সিদ্ধান্তে পৌঁছনোর চেষ্টা করা হবে।