শুক্রবার, নভেম্বর 27, 2020

শীতে কোন তেলে ত্বক তাজা!
শীতে কোন তেলে ত্বক তাজা!

শীতে কোন তেলে ত্বক তাজা!

  • scoopypost.com - Nov 04, 2020
  • হিমেল হাওয়া বইতেই ত্বক শুকনো হতে শুরু করেছে। টান লাগছে চামড়ায়। খসখস করছে।এমনিতে যাদের শুষ্ক ত্বক তাদের শীতের দিনে সমস্যা বাড়ে।অনেকের ড্রাইনেস অ্যালার্জিও শুরু হয়।তাই ঠান্ডা থেকে বাঁচতে আমরা যেমন শীতের পোশাক পরি, তেমনই ত্বকেরও পোশাক দরকার।

    এই পোশাক হল ময়শ্চারাইজার। যেটা সবচেয়ে ভালো করে তেল। ম্যাসাজে শরীরের টক্সিন, মৃত কোষ বেরিয়ে যায়। তেল ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখার পাশাপাশি উজ্জ্বল করে তোলে। বাজারে নানা রকমের তেল পাওয়া যায়। তাদের প্রত্যেকেরই নির্দিষ্ট গুণ আছে। কোন তেলের কী গুণ, জেনে ঠিক করুন শীতে কোনটা ব্যবহার করবেন ত্বক তরতাজা রাখতে।

     

    অলিভ অয়েল

    ত্বক থেকে চুল, অত্যন্ত উপযোগী হল অলিভ অয়েল। অলিভ অয়েল ম্যাসাজে শরীর রিল্যাক্সড লাগে। সেইসঙ্গে ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখতে অলিভ অয়েলের জুড়ি মেলা ভার।

    অলিভ অয়েল ম্যাসাজে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়, শরীর থেকে টক্সিন দূর করে।

    নিয়মিত ম্যাসাজে শারীরিক ক্লান্তি দূর হয়।

    শরীরে পুষ্টির উত্স অলিভ অয়েল, যা মেটাবলিজম বাড়াতে সাহায্য করে

    ত্বককে টানটান ও দৃঢ় করে

     

    কোকোনাট অয়েল

    চুলের যত্নে নারকেল তেল বেশি ব্যবহার হয়। কিন্তু ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি এই তেল। বেশি ভালো ফল পেতে এর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

    তেলে থাকা ফ্যাটি অ্যাসিড ও ফ্যাট ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখতে বিশেষ সাহায্য করে

    খুব তাড়াতাড়ি ত্বক টেনে নেয়, চটচটে নয়

    বলিরেখা, শুষ্কভাব দূর করতে অনবদ্য

    ভিটামিন ই ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ তেল ত্বকের জন্য উপকারি

     

    আমন্ড অয়েল

    সংবেদনশীল থেকে যে কোনও ত্বকের জন্যই আমন্ড অয়েল ভালো। খুব বেশি ভারী বা হাল্কা কোনটাই নয়। সহজেই ত্বকে ঢুকে যায়।

    ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখতে ও ময়শ্চারাইজ করতে সাহায্য করে

    সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে

    পেশির ব্যাথা থাকলে ম্যাসাজে আরাম হয়

     

    ক্যাস্টর অয়েল

    গুণ অনেক। তবে একটু বেশি চটচটে। তাই নারকেল তেল বা অলিভ অয়েলের সঙ্গে মিশিয়ে ম্যাসাজে সুবিধে

    অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বকের জন্য খুব উকারি

    ছোটখাটো সংক্রমণ হলে ক্যাস্টার অয়েল ম্যাসাজ ভালো

    ব্যাথা উপশম ও রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য করে

    ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখার পাশাপাশি ত্বক উজ্জ্বল করতে এর জুড়ি নেই

     

    সানফ্লাওয়ার অয়েল

    রান্নাঘরে এর অবারিত দ্বার। তবে রান্নায় ব্যবহৃত সানফ্লাওয়ার অয়েল ত্বকের জন্যও ভালো। এরসঙ্গে ভিটামিন ই ক্যাপসুল মিশিয়ে নিলে আরও ভালো ফল পাওয়া যাবে।

    তেলের অ্যান্টি এজিং প্রপার্টি ত্বককে ঝকঝকে করে

    ভেতর থেকে আদ্র রাখতে সাহায্য করে

    নিয়মিত ম্যাসাজে বলিরেখা দূর হয়, বিষাক্ত টক্সিন বেরিয়ে যায়।