শনিবার, মার্চ 06, 2021

তুলসি মাহাত্ম্য, রোজ খেলেই বিন্দাস শরীর
তুলসি মাহাত্ম্য, রোজ খেলেই বিন্দাস শরীর

তুলসি মাহাত্ম্য, রোজ খেলেই বিন্দাস শরীর

  • scoopypost.com - Nov 28, 2020
  • সকাল, সন্ধে তুলসিতলায় ঠাকুমার হাত ধরে পিদিম দেওয়ার দিন শেষ। দুকামরার ছোট্ট ফ্ল্যাটেই এখন পরিবার নিয়ে লোকজনকে মানিয়ে নিতে হয়। তুলসিতলা দূর অস্ত। তুলসি গাছকে বাতি দেখাবে, লোকের সময় কোথায় আছে!

    ইদানীং করোনা আবহে তুলসির গুরুত্ব ফিরেছে। হালফিলের বহুতলের রান্নাঘরেও তুলসি পাতার খোঁজ পড়ছে।ঠাকুমা বলতেন, তোদের যত শর্দি-কাশি হলে ওষুধ খাওয়া। আমরা যখন পোয়াতি হয়ে ডাক্তারের কাছে যেতুম, তিনিই বলতেন মা ঠান্ডা লেগেছে তুলসির রস মধু দিয়ে ফুটিয়ে খাও। ছেলের ঠান্ডা লেগেছে ওষুধ খাক, সঙ্গে তুলসি-মধু।

    হিন্দু ঘরে তুলসি ভগবান। রোজ তাঁকে পুজোর রেওয়াজ। তবে এই তুলসির সঙ্গে ধর্মের ভাব যাই থাকুক, এ গাছ যে মহৌষধি বিজ্ঞানও তা মানছে।আয়ুর্বেদে ৫ হাজার বছর ধরে তুলসি অপরিহার্য উপাদান।একে বলা বয় ‘ভেষজের রানি’।

    অ্যাজমা থেকে শ্বাসকষ্ট, ঠান্ডা লাগা, পেটের সমস্যা সবেতেই একটা নাম সেটা হল তুলসি। পাতার গন্ধ ভীষণ সুন্দর।আর তুলসির রসে মধু দিয়ে গরম করলে বাচ্চারা তো চেটেপুটে খাবে।

    জেনে নিন কী গুণ এই পাতার

    শ্বাসের রোগে অব্যর্থ-ঠান্ডা লেগে শর্দি, কাশি কিম্বা অ্যাজমা, ব্রঙ্কাইটিস তুলসি পাতা দিয়ে ফোটানো চা বা তুলসির রস বের করে মধুতে মিশিয়ে খেলে ম্যাজিকের মতো কাজ করবে।বুকে কফ থাকলে জলে তুলসি পাতা ফুটিয়ে সেই বাষ্প মুখ ও নাক দিয়ে নিলে আরাম মিলবে।

    হার্ট ভালো রাখে- নিয়মিত তুলসিপাতা খেলে তা রক্তে কোলেস্টরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, প্রেসার আয়ত্তে রাখে। এতে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হার্টের জন্যও কার্যকর।

    হজমে সহায়ক- হজমের সমস্যাতেও তুলসি পাতা জলে ফুটিয়ে খেলে তা কাজ করে। বমিবমি ভাব, আলসার, পেটের ব্যাথাতেও তুলসির রস ওষুধ হিসেবে ভালো।

    ব্যাথা কমায়- শরীরে বিশেষত গাঁটের ব্যথা কমাতেও সাহায্য করে তুলসি পাতা।

    সুগার নিয়ন্ত্রণ করে- নিয়মিত তুলসি পাতা ফুটিয়ে চা খেলে তা শরীরে সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। মেটাবলিজম বাড়িয়ে শরীর চনমনে রাখে।

    প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক- কোথাও কেটে গেলে, পোকা কামড়ালে তখনই জ্বালা কমাতে তুলসির রস দিন। গ্রাম বাংলায় তুলসি এভাবে বহুদিন ব্যবহার হয়ে আসছে।

    তিন ধরনের তুলসি হয় রাম তুলসি, কৃষ্ণ তুলসি, বন তুলসি। সব কটাই খাওয়া যায়। তবে তুলসি ভালো বলেই অপিরমিত খাওয়া ঠিক নয়।