সোমবার, মার্চ 08, 2021

চুমুক দিন গোলাপি চা-এ
চুমুক দিন গোলাপি চা-এ

চুমুক দিন গোলাপি চা-এ

  • scoopypost.com - Dec 02, 2020
  • সকাল বেলা ধোঁওয়া ওঠে গরম চা দিনটা তরতাজা করে দেয়। দার্জিলিং চা-এর অসাধারণ রংয়ে কি আপনি মুগ্ধ হন? কিম্বা দুধ-চিনির গাঢ় চা  আপনার পছন্দ! এখন তো শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সকলে খেতে শুরু করেছে ‘কড়া’।

    তবে গোলাপি চা বা পিঙ্ক টি খেয়েছেন কি! না রং দেওয়া নয়, একেবারে খেটেখুটে তৈরি করা গোলাপি কাশ্মীরি চা!তাহলে এবার বরং সেটাই ট্রাই করুন। রইল রেসিপি।

    লাগবে-বরফ ঠান্ডা জল, চা পাতা, এলাচ, দারচিনি, স্টার অ্যানিশ, আমন্ড, পেস্তা, চিনি, দুধ, খাবার সোডা

    কী করে করবেন- একটি পাত্রে প্রচণ্ড ঠান্ডা জল নিন। তার মধ্যে দিয়ে দিন কয়েকটা এলাচ, এক টুকরো দারচিনি ও একটা স্টার অ্যানিশ। ভালো করে ফোটাতে থাকুন। দিয়ে দিন চা-পাতা। কাশ্মীরে সেখানকার চা-পাতা ব্যবহার হয়। না-থাকলে যে চা পাতা পাওয়া যাবে তাই দিয়ে জলটা ফোটাতে ফোটাতে হবে। ভালো করে ফুটে গেলে মিশিয়ে দিন আধ চামচ খাবার সোডা।এবার ক্রমাগত নাড়তে থাকুন। যতটা জলে চা করা শুরু করেছিলেন ফুটতে ফুটতে তার অর্ধেকের কম হয়ে গেলে আবার ঢালুন এককাপের বেশি পরিমাণ ঠান্ডা জল। জল যত ঠান্ডা হবে রংও তত গাঢ় হবে। এভাবে ফোটাতে ফোটাতে গাঢ় গোলাপি রং হয়ে গেলে মিশ্রনটা ছেঁকে নিন।

    একটি পাত্রে ফুল ফ্যাট দুধ ফুটতে দিন।  তাতে দিন স্বাদমতো চিনি। আর ওইযে গাঢ় গোলাপি রংয়ের  চা তৈরি করেছেন তার কিছুটা দুধে মিশিয়ে দিন।আসলে প্রথম ধাপে রংটা গোলাপির থেকে অনেক গাঢ় থাকে। সেটা দুধে মেশালে নিখুঁত বেবি পিঙ্ক রং আসে। চায়ের ওপর ছড়িয়ে দিন কুঁচনো আমন্ড ও পেস্তা।

    কাশ্মীরের ট্র্যাডিশনাল পিঙ্ক টি শরীর গরম রাখতে সাহায্য করে।তাহলে দেরি না করে এবার চুমুক দিন গোলাপি চা-এ।