বুধবার, অক্টোবর 21, 2020

ধর্ষণ ও গর্ভপাত করানোর অভিযোগে মিঠুন পুত্রের বিরুদ্ধে মামলা
ধর্ষণ ও গর্ভপাত করানোর অভিযোগে মিঠুন পুত্রের বিরুদ্ধে মামলা

ধর্ষণ ও গর্ভপাত করানোর অভিযোগে মিঠুন পুত্রের বিরুদ্ধে মামলা

  • scoopypost.com - Oct 17, 2020
  • সময়টা ভালো যাচ্ছে না মহগুরুর। দুদিন আগেই সুপ্রিম কোর্ট মিঠুন চক্রবর্তীর নীলগিরির রিসর্ট ভেঙে দেওয়ার আদেশ দিয়েছে। আর ২০১৮ তে তাঁর ছেলে মহাক্ষয় ওরফে মিমোর বিরুদ্ধে ওঠা ধর্ষণ এবং জোর করে গর্ভপাত করানোর অভিযোগে মুম্বইয়ের একটি থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযোগ করা হয়েছে মিমোর মা এবং মিঠুনের স্ত্রী যোগিতা বালীর বিরুদ্ধেও। অভিযোগকারিনী অভিযোগে জানিয়েছেন, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মিমো ২০১৫ সাল থেকে তাঁকে বছর চারেক লাগাতার ধর্ষণ করে। ২০১৮ সালে মিমো মাদলসা শর্মাকে বিয়ে করেন। বিয়ের পিঁড়িতে বসার আগেই অভিযোগকারিনী মিমোর বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে ধর্ষণের অভিযোগ করেন। পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে মিমো প্রথমবার অভিযোগকারিনীকে ধর্ষণের পর তাঁকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন। এরপর বেশ কয়েকবার সহবাসে গর্ভবতী হয়ে পড়েন তিনি। তখন তাঁকে জোর করে গর্ভপাত করানো হয়। অভিযোগকারিনীর বদনামের ভয় দেখিয়ে পুরোটা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন যোগিতা বালী। সংবাদমাধ্যমে একটু আধটু লেখালেখি হলেও তা বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশও পীড়িতার অভিযোগকে গুরুত্ব দেয়নি। এদিকে কাজের সূত্রে পীড়িতাও দিল্লিতে চলে যান। কিন্তু দিল্লির রোহিনী আদালতে ম‍্যাজিস্ট্রেটের কাছে পীড়িতা তাঁর অভিযোগ জানালে আদালত পুলিশকে পীড়িতার অভিযোগ গ্রহণ করে মামলা রুজু করার নির্দেশ দেয়। সম্প্রতি মুম্বইয়ের একটি থানায় মিঠুনের ছেলে মহাক্ষয় ওরফে মিমোর বিরুদ্ধে ধর্ষণ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, জোর করে গর্ভপাত করানো এবং মিঠুনের স্ত্রী যোগিতা বালীর বিরুদ্ধে মিমোর অপরাধে সহযোগিতা করার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে।