বুধবার, এপ্রিল 14, 2021

কাঁথিতে তৃণমূলের সভা
কাঁথিতে তৃণমূলের সভা

কাঁথিতে তৃণমূলের সভা

  • scoopypost.com - Dec 23, 2020
  • শুভেন্দু চলে গেলেও কাঁথির জনতা তৃণমূলের সঙ্গেই আছেন। বুধবার এই বার্তা তুলে ধরতে তৃণমূল কংগ্রেস এখানে মিছিল এবং সভা করেন। সভার মূল উদ্যোক্তা ফিরহাদ হাকিম এবং সাংসদ সৌগত রায়। এদিনের সভায় যোগ দেওয়ার জন্য শিশির অধিকারীকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি অসুস্থতার কারণে থাকতে পারবেন না বলে আগেই জানিয়েছিলেন।

    সৌগত রায় এদিন তাঁর বক্তব্যে কড়া ভাষায় শুভেন্দু এওবং তাঁর পরিবারকে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন , কাঁথি কোনও পরিবারের সম্পত্তি নয় এদিন মানুষ সে কথা প্রমাণ করলেন। তিনি বলেন সমুদ্র থেকে দু এক কলসি জল তুলে নিলে কিছু যায় আসে না। তেমনই তৃণমূল থেকে দু একজন চেতা চলে গেলেও দলের ক্ষতি হবে না। তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখেই দল এগিয়েছে, আগামি দিনেও তাই হবে। তিনি বলেন, শুভেন্দুর বিশ্বাসঘাতক্তার জন্য মানুষ তাকে ক্ষমা করবেন না।

    এদিন তিনি কেন্দ্রের মোদি সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। বিভিন্ন ইস্যুতে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেন। একই সঙ্গে তিনি, কেন মমতা সরকার কেন্দ্রের আয়ূষ্মান ভারত প্রকল্প গ্রহণ করেনি সেই ব্যাখ্যাও দেন। তিনি বলেন, কেন্দ্রের এই প্রকল্পে কেন্দ্র দেয় ষাট শতাংশ টাকা আর রাজ্য দেয় চল্লিশ শতাংশ টাকা। রাজ্য সরকার টাকা দেবে অথচ নাম হবে কেন্দ্রের, এ হতে পারেনা। তিনি বলেন মমতা বন্দ্যোয়াপাধযায় যে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প চালু করেছেন, তার একশ শতাংশ টাকাই রাজ্য সরকার দেয়। শুধু তাই নয়, এই প্রকল্পে পরিবারের মহিলাদের নামে কার্ড দেওয়া হয়, এবং পরিবারের সকলেই এই প্রকল্পের সুবিধে পাবেন। কেন্দ্রের আয়ূষ্মান প্রকল্পে সেই সুযোগ নেই। এবার আপনাদেরই বিচার করতে হবে কোন প্রকল্প আপনাদের জন্য ভাল। সৌগত রায় দাবি করেন একই ভাবে  রাজ্য সরকারের কৃষকদের জন্য যে প্রকল্প আছে তাও কেন্দ্রের প্রকল্পের চেয়ে অনেক ভাল।

    এর পাশাপাশি, তিনি মোদি সরকারকে কৃষক আন্দোলন নিয়েও সমালোচনা করেন।তিনি বলেন, মোদি সরকার দেশের সম্পত্তি বেসরকারি পুঁজিপতিদের হাতে বিক্রি করে দিচ্ছেন। আম্বানি আবং আদানিদের হাতে দেশের সমস্ত সম্পদ তুলে দিচ্ছেন। সৌগত রায় বলেন, রেল বিক্রি করে দিয়েছে, বিমান বন্দর বিক্রি করে দিয়েছে, শিপিং কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া বিক্রি করে দিচ্ছে। এখন দেশের কৃষি সম্পদকেও আম্বানি, আদানিদের হাতে তুলে দিতে চাইছেন। দেশের অন্নদাতারা তাই নিজেদের অধিকারের লড়াই লড়ছেন। তিনি বলেন, কৃষক নেতারা এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।  

    এদিনের সভায় ফিরহাদ হাকিমও বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, দল এখন মুক্ত হল।এখন দলের কর্মীরা অনেক বেশি সক্রিয় হয়ে কাজ করতে পারবেন।