বুধবার, এপ্রিল 14, 2021

কাঁথিতে শুভেন্দুর পালটা সভা
কাঁথিতে শুভেন্দুর পালটা সভা

কাঁথিতে শুভেন্দুর পালটা সভা

  • scoopypost.com - Dec 24, 2020
  • আট তারিখেই মুখ্যমন্ত্রীকে জবাব দেবেন শুভেন্দু অধিকারী । সাত তারিখ নন্দীগ্রামে সভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেদিন তিনি যা বলবেন তার সমস্ত  জবাব তিনি পরদিনই দিয়ে দেবেন। তিনি দাবি করেন দুই মেদিনীপুর মিলিয়ে ৩৫টি বিধানসভা আসনের ৩৫টিই তাঁরা জিতবেন। বৃহস্পতিবার কাঁথির সেন্ট্রাল বাসস্ট্যান্ডে ভীড়ে ঠাসা জনসভায় এ কথা বলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু অধিকারী। এদিন প্রকৃতপক্ষে তৃণমূলের পালটা সভা করেন শুভেন্দু অধিকারী। এদিন তিনি সৌগত রায়, ফিরহাদ হাকিম তাঁর বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তুলেছিলেন তারও জবাব দেন।

     বৃহস্পতিবার মেচেদা বাইপাস মোড় থেকে শুভেন্দুর মিছিল শুরু হয়। মিছিলে তাঁর সঙ্গী হন জয়প্রকাশ মজুমদার এবং সৌমিত্র খাঁ। বেলা পৌনে তিনটে নাগাদ মিছিল শুরু হয়। প্রায় পাঁচ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে কাঁথি সেন্ট্রাল বাসস্টান্ডে মিছিল শেষ হয় সন্ধ্যে সাড়ে পাঁচটা নাগাদ।

    এদিনের সভা থেকে শুভেন্দু বলেন, আদর্শ আচরণবিধি লাগু হলে তিনি আস্ল খেলা দেখাবেন।শুভেন্দু তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই পুলিশ প্রশাসনকে একহাত নেন। তিনি বলেন, আগে পুলিশ ছিল দলদাস এখন তারা ক্রীতদাসে পরিণত হয়েছে। পুলিশকে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, মনে রাখবেন বেশি বাড়াবাড়ি করলে ক্ষমতায় এসে সবাইকে দশ বছরের জন্য কম্পালসারি ওয়েটিংএ পাঠানো হবে।  

    বিজেপিতে যোগ দেওয়া যে তাঁর সঠিক  সিদ্ধান্ত ছিল এদিন মানুষের ব্যাপক জনসমাগম তার স্বীকৃতি দিয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।তিনি বলেন গণতন্ত্রে মানুষই শেষ কথা বলেন। আজ মানুষ তাঁর বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় সিলমোহর দিয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি ।

    এদিন সভায় শুভেন্দু সৌগত রায়ের বক্তব্যের জবাব দেন। সৌগত রায়কে তাঁর অতীত রাজনৈতিক পদক্ষেপ স্মরণ করিয়ে দেন। তিনি বলেন, এক সময় ইন্দিরা গান্ধির টিকিট নিয়ে ভোটে জিতে পরে ইন্দিরা গান্ধির বিরুদ্ধাচারণ করেন। যোগ দেন দেবরাজ আর্সের কংগ্রেসে। সৌগত রায় ১৯৯৮ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে  দক্ষিণ কলকাতা থেকে লড়াই করেছিলেন।ফলে তাঁর মুখে বিশ্বাসঘাতক কথা মানায়  না। অভিষেক প্রসঙ্গে  বলেন, ভাইপোতে আপত্তি নেই, তোলাবাজ ভাইপোতে আপত্তি আছে। শুভেন্দুর দাবি এবার বিজেপি রাজ্যে ২০০র বেশি আসন পাবে। এদিনের মিছিলে আসা মানুষের ভীড়কে তিনি বিজেপির সাংগঠনিক শক্তির পরিচয় বলে উল্লেখ করেন। বিজেপি তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী  মুখ হিসেবে ঘোষণা করবে কিনা এই প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে শুভেন্দু বলেন, তিনি বিজেপির এক প্রাথমিক সদস্য মাত্র। এই সব বিষয়ে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব সিদ্ধান্ত নেবে। রাজ্যে কবে থেকে প্রচার শুরু করবেন তার জবাবে তিনি বলেন, দল তাঁকে যে কর্মসূচি দেবে তিনি তাই মেনে চলবেন। এর সঙ্গেই তিনি জানিয়েদেন, আগামি ২৭ তারিখ তিনি পশ্চিমমেদিনীপুরে সভা করেবন।

    শুভেন্দুর পাশে দাঁড়িয়ে সৌমিত্র খাঁ বলেন, যাঁরা তৃণমূলে থাকবেন তাঁর ভাল আর বিজেপিতে গেলেই তাঁরা খারাপ। এদিনি তিনি প্রবীণ তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়কেও কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, সৌগত দা আগে দমদমে জিতে দেখান তারপর কথা বলবেন। তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আজ আর মানুষ নেই আছে শুধু কিছু পুলিশ অফিসার।