শুক্রবার, অক্টোবর 30, 2020

ই-স্নান , গঙ্গাসাগরে এবারের নয়া চমক
ই-স্নান , গঙ্গাসাগরে এবারের নয়া চমক

ই-স্নান , গঙ্গাসাগরে এবারের নয়া চমক

  • scoopypost.com - Jan 15, 2020
  • গঙ্গাসাগর। কখনো পুরনো হয়না । পুণ্যার্থীদের কাছে এর অমোঘ টান, আজও কিছু মাত্র কমেনি। বরঞ্চ বেড়েই চলেছে। প্রশাসনিক পরিসংখ্যান সে কথাই বলছে। এখনও চূড়ান্ত সংখ্যা এই মুহূর্তে হাতে না এলেও মনে করা হচ্ছে এবার পুণ্যার্থীর সংখ্যা ৫০  লাখ ছাড়িয়ে যাবে। আজ সকালেই এর অর্দ্ধেক তাঁদের পুণ্যস্নান সেরে নিয়েছেন।

    পুণ্যার্থীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার জন্য পরিকাঠামোর দ্রুত উন্নয়ন,যার মধ্যে রয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ এবং আধুনিকিকরণ। গঙ্গাসাগর আজ আর দুর্গম নয়।সড়ক, রেল এবং জলপথে গঙ্গাসাগরে যাওয়া এখন অনেক সহজ ।স্নান সেরে একই দিনে ফিরে আসা যায়। এর পাশাপাশি প্রশাসন সাগরে থাকার জন্য যে ব্যবস্থা করে তাও অনেক উন্নত মানের।চিন্তা করতে হয় না নিরাপত্তা বা হঠাৎ অসুস্থতার জন্য। ফলে গঙ্গাসাগর পুণ্যার্থীদের কাছে এখন অনেক বেশি উপভোগ্য হয়ে উঠেছে।

    আজ বুধবার ভোরেই লাখ, লাখ পুণ্যার্থী তাঁদের পুণ্যস্নান সেরে ফেলেন। ভীড় হয় কপিল মুনির আশ্রম সংলগ্ন সাগরে। সব বয়সের মানুষই সামিল হন স্নানে। তবে এবারের স্নানে নতুন বিষয় ই-স্নান। ইচ্ছে থাকলেও অনেকেই বিভিন্ন কারণে আসতে পারেন না গঙ্গাসাগরে। তাঁদের কথা ভেবেই প্রশাসন ই-স্নানের ব্যবস্থা করেছে। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার জেলে শাসক পি উলগানাথন জানিয়েছেন, ই-স্নানে ব্যাপক সাড়া মিলেছে। প্রায় সাত হাজার আবেদন জমা পড়েছে। প্রশাসন তার মধ্যে ২৮৮০জনকে ই-স্নানের ব্যবস্থা করে দিতে পেরেছে। হাতে আছে আরও এক দিন।

    এই ই-স্নানে আবেদনকারীকে পুজোর সমস্ত সামগ্রী এবাং গঙ্গাজল সরবরাহ করা হয়। যাতে ঘরে বসেই তাঁরা পুণ্যস্নান সেরে নিতে পারেন। প্রশাসন সূত্রে খবর রাজ্যাএর বুভিন্ন জেলে থেকে তো বটেই, ভিন রাজ্য থেকেও এই ই-স্নানের আবেদনে ভাল সাড়া পাওয়া যাচ্ছে।