বুধবার, এপ্রিল 14, 2021

জমিয়ে ঠান্ডা, মজা নিচ্ছে কলকাতা
জমিয়ে ঠান্ডা, মজা নিচ্ছে কলকাতা

জমিয়ে ঠান্ডা, মজা নিচ্ছে কলকাতা

  • scoopypost.com - Dec 20, 2020
  • শুক্রবার পর্যন্তও শীত সেভাবে ছিল না  বঙ্গে। তবে গত ৪৮ ঘণ্টায় এক ধাক্কায় পারা পতন তিন ডিগ্রি। রবিবার আলিপুরের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা নামল ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। আর কলকাতার আশপাশে তাপমাত্রার পারদ নামল তার চেয়ে আরও নীচে।

    আপাতত মঙ্গলবার পর্যন্ত শীতল চালিয়ে ব্যাটিং করবে বলছে আবহাওয়া দফতর।রবিবার আলিপুরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ ডিগ্রি কম। গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ২২.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ ডিগ্রি কম।দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১০.৮, সল্টলেক ১০.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

    পূর্ব বর্ধমানের তাপমাত্রা রবিবার নেমেছে ৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলে ছিল ১০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।বাঁকুড়া ৯.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দিঘা ১০.৩ ডিগ্রি। হাওয়া অফিসের মতে, এটাই এই মরসুমের শীতলতম দিন।

    অন্যান্যবার ডিসেম্বরের শুরুতে দীর্ঘস্থায়ী না হলেও মাঝেমধ্যেই শীত জাঁকিয়ে পড়ে। তবে এবার পরপর ঘূর্ণিঝড় ও পশ্চিমীঝঞ্ঝার দাপটে বাধা পেয়েছিল উত্তুরে শুষ্ক শীতল হাওয়া।ঝঞ্ঝা সরতেই হুড়মুড়িয়ে ঢুকেছে ঠান্ডা বাতাস। আর তার জেরেই শনিবার থেকে ক্রমশ নামছে তাপমাত্রার পারদ। কলকাতার তাপমাত্রার আগামী দু’দিনও ১২ ডিগ্রির আশপাশে থাকবে।

    উত্তরবঙ্গেও জাঁকিয়ে পড়েছে ঠান্ডা। শৈলশহর দার্জিলিঙের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন ৩ ডিগ্রি। কোচবিহারে সর্বোচ্চ ২৩.৫ ডিগ্রি, সর্বনিম্ন ৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, জলপাইগুড়িতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২২.৮, সর্বনিম্ম ৮.৮।তবে এই জাঁকিয়ে ঠান্ডা খুব বেশিদিন স্থায়ী হবে না। ২৫ ডিসেম্বর একটু হলেও চড়বে তাপমাত্রার পারদ।

    শীতের মরসুমে ঠান্ডার মেজাজ আসতেই ভিড় বাড়তে শুরু করেছে কলকাতার দর্শনীয় স্থানগুলোতে। কোভিড বিধি মেনেই লোকজন যাচ্ছেন চিড়িয়াখানা, ভিক্টোরিয়ায়।গ্রামাঞ্চলে শুরু হয়েছে পিকনিক।আর বরফের টানে বাঙালি ছুটছে হিমাচল থেকে কাশ্মীর। ভিড় বাড়ছে শৈলশহর দার্জিলিঙেও।