বুধবার, অক্টোবর 21, 2020

বইমেলার চমক ‘থিম গেট’
বইমেলার চমক ‘থিম গেট’

বইমেলার চমক ‘থিম গেট’

  • scoopypost.com - Jan 27, 2020
  • ২৮ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে ৪৪ তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা। গতবারের মতই এবার সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্ক মেলা মাঠে আয়োজিত হবে কলকাতা বইমেলা। এ বছরের থিম কান্ট্রি রাশিয়া। মঙ্গলবার বিকেলে বইমেলার উদ্বোধন করবেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন রাশিয়ার মন্ত্রী সমতুল পদাধিকারী ভ্লাদিমির গ্রিগোরিয়েভ, ভারতে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত কুদাসেভ নিকোলায় রিশাটভিক, কলকাতায় রাশিয়ার কনসাল জেনারেল সহ রাজ্যের মন্ত্রীরা।  সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন করে এ কথা জানান পাবলিশার্স ও বুক সেলার্স গিল্ড এর সম্পাদক সুধাংশু শেখর দে। সাংবাদিক সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সভাপতি ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা সাহিত্য উৎসবের ডিরেক্টর সুজাতা সেন সহ বিশিষ্ট জনেরা।

    এই বছরের থিম কান্ট্রি রাশিয়া হওয়ায়, রাশিয়ার চারটি বই বাংলা ভাষায় প্রকাশিত হবে বইমেলা থেকে। বইগুলির নাম রাখা হয়েছে, ‘বিজ্ঞাপনে মেলে না’, ‘ফ্রসিয়া করভিনা’, ‘এক থেকে দশ প্রেম’ ও ‘রঙবেরঙের তুষার’। ১২ জুন রাশিয়া দিবস। রাশিয়া থিম কান্ট্রি হওয়ার সুবাদে ৩০ জানুয়ারি রাশিয়া দিবস উদযাপন করা হবে বইমেলায়। ২ ফেব্রুয়ারি পালিত হবে শিশু দিবস। ২০২০ সালের বইমেলার সমাপ্তি ঘোষণা হবে ৯ ফেব্রুয়ারি। সেই দিনটি পালন করা হবে বাংলাদেশ দিবস হিসাবে।

    এই বছরের বইমেলার আকর্ষণ থাকছে প্রবেশ পথে। থিমে সেজে উঠবে বইমেলার বিভিন্ন গেট। মেলার ১ নম্বর গেট হচ্ছে সম্প্রীতি গেট। সেটা তৈরি হচ্ছে ইন্ডিয়া গেটের আদলে। ৪ নম্বর গেট সংস্কৃত কলেজের গেটের আদলে হচ্ছে। ৫ নম্বর গেট হবে রাশিয়ার বলশয় থিয়েটারের আদলে। ৯ নম্বর গেট তৈরি হচ্ছে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ির গেটের  আদলে। শুধু গেটে থিম নয়, মেলার ভিতরের রাস্তা গুলিকেও নতুন নাম দেওয়া হচ্ছে। বইমেলার রাস্তাগুলির নামকরন করা হচ্ছে ভারত তথা বাংলার ও রাশিয়ার সাহিত্যিকদের নামে।

    বইমেলার সুরক্ষার দিকে বিশেষ নজর দিচ্ছে গিল্ড। মেলার প্রতিটি জায়গাকে সিসিটিভি নজরদারির আওতায় নিয়ে আসা হচ্ছে। এছাড়াও ম্যান কাউন্টিং মেশিন, ফায়ার টেন্ডার সহ অন্যান্য সুরক্ষা ব্যবস্থা রাখা হবে। মেলার মধ্যে সিভিল ড্রেসে থাকবে মহিলা ও পুরুষ পুলিশ। ছিনতাই বা পিকপকেটিং রুখতে বিশেষ নজরদারি চালাবে বিধাননগর পুলিশ। শ্লীলতাহনি রুখতে মেলার ভিড়ে থাকবে মহিলা পুলিশের বিশেষ দল। এছাড়াও ড্রোনের সাহায্যে চলবে নজরদারী বলে বিধাননগর পুলিশ সূত্রে খবর।