বুধবার, নভেম্বর 25, 2020

চলমান লাইব্রেরি পাচ্ছে শহর
চলমান লাইব্রেরি পাচ্ছে শহর

চলমান লাইব্রেরি পাচ্ছে শহর

  • scoopypost.com - Sep 24, 2020
  • বৃহস্পতিবার থেকেই চলমান লাইব্রেরির পথ চলা শুরু হচ্ছে শহর কলকাতায়। রাজ্য পরিবহন দপ্তরের উদ্যোগে এই চলমান লাইব্রেরি যাত্রা শুরু করল। ট্রাম কোম্পানি তাদের এক কামরার এসি ট্রামে এই লাইব্রেরি চালু করছে।

    উমপুনের পর কলকাতার একাধিক ট্রাম রুটের ক্ষতি হয়।এখন সেগুলি আবার চালু হচ্ছে। বৃহস্পতিবার থেকে খুলছে ট্রামের সবচেয়ে পুরনো রুট শ্যামবাজার থেকে ধর্মতলা ভায়া কলেজস্ট্রিট। এই রুটেই চালু হচ্ছে চলমান লাইব্রেরি। একটি এক কামরার এসি ট্রামে থাকবে এই লাইব্রেরি। যাত্রীরা ট্রামে উঠে বই, ম্যাগাজিন নিয়ে পড়তে পারবেন।  

    ট্রামের এই রুট যেহেতু বইপাড়াকে ছুঁয়ে চলাচল করে তাই এই লাইব্রেরি অনেকেরই মন কেড়েছে। ভাড়া এক পিঠের জন্য কুড়ি টাকা। মাত্র ৫০০ মিটার যাত্রা পথের ভাড়া কুড়ি টাকা করা নিয়ে চিন্তায় ছিলেন দপ্তরের আধিকারিকরা। কারণ, যে সব ট্রামে এসি নেই তার ভাড়া চার কিলোমিটারের জন্য মাত্র ছ টাকা হওয়ায় ট্রাম কর্তাদের চিন্তা ছিল এত ভাড়া দিয়ে কেউ ট্রামে উঠবেন কিনা? বাস্তবে দেখা গেল ঠিক উলটো। প্রথম তিন সপ্তাহেই যাত্রীদের কাছে এই ট্রামের কদর বেড়ে গেল। দিনে ছটি ট্রিপ এই রুটে। দেখা যাচ্ছে এসি ছাড়া দু কামরার ট্রামে যা রাজস্ব আয় হয় এই এসি এক কামরার ট্রামে  তার প্রায় তিনগুন হয়।উমপুনের পর এই শ্যামবাজার-ধর্মতলা রুট চালু হওয়ায় মোট পাঁচটি রুটে ফের ট্রাম যাতায়াত শুরু হয়ে গেল।দু কোচের ট্রামের এক একটির মাপ হয় ২৮ ফুট। এই এক কামরার এসি ট্রামের মাপ একটু বেশি-৩৬ ফুট। ৫০০ মিটার যাত্রা পথে বহু ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপতিষ্ঠান ছুঁয়ে যায় এই ট্রাম। যেমন স্কটিশ চার্চ কলেজ, প্রেসিডেন্সি কলেজ, সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়, কলকাতা মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল।   

    পরিবহন দপ্তরের কর্তারা এখন লাইব্রেরির পর আরও অনেক কিছু এই এসি ট্রামে করার কথা ভাবছেন। যেমন এই ট্রামেই বই উদ্বোধন, সাহিত্য উৎসব এসব করার কথাও তাঁদের পরিকল্পনায় আছে।

    পরিবহন কর্তাদের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ট্রাম যাত্রী অ্যাস্যসিয়েশন। একই সঙ্গে তাঁরা বলেছেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই ট্রামকে গুরত্ব দেওয়া হয়। কারণ ট্রাম অত্যন্ত পরিবেশ বান্ধব যান। সমস্ত বয়সের যাত্রীরাই এই ট্রামে চলাচল করতে স্বচ্ছন্দ বোধ করেন। অথচ বার বার এই ট্রাম বন্ধ করে দেওয়ার কথা ওঠে।