বুধবার, নভেম্বর 25, 2020

খুচরো ব্যবসায় রিলায়েন্স
খুচরো ব্যবসায় রিলায়েন্স

খুচরো ব্যবসায় রিলায়েন্স

  • scoopypost.com - Aug 30, 2020
  • দেশের খুচরো ব্যবসার বাজারে এবার ঢুকে পড়ল রিলায়ন্স ইন্ডাস্ট্রিজ। ফিউচার গোষ্ঠির ব্যবসা কিনে তারা এখন খুচরো বাজার সহ সহ একাধিক ক্ষেত্রে নিজেদের ব্যবসার প্রসার ঘটাল।ফিউচার গোষ্ঠীর কাছ থেকে তারা খুচরো, পাইকারি, পণ্যপরিবহণ এবং গুদাম ব্যবসার মালকানা স্বত্ত কিনে নিয়েছে। ফলে আগামি দিনে এইসব ক্ষেত্রেও ঢুকে পড়ল তারা। এর ফলে দেশেই শুধু নয় গোটা দক্ষিণ এশিয়ায় ব্যবসা ক্ষেত্রে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে মুকেশ অম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ। রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ খুচরো ব্যবসায় ঢুকে পড়ায় এবার প্রতিযোগিতা আরও বাড়বে বলেই শিল্প মহলের ধারণা। এর পাশাপাশি আরও বেশকিছু প্রশ্নও দেশের শিল্প মহলে ঘোরাফেরা করছে।

    রিলায়েন্স ইডাস্ট্রিজের এই বাড়বাড়ন্তকে অনেকে আবার দেশের শিল্প ক্ষেত্রে মনোপলি ব্যবস্থা ফিরে আসার ইঙ্গিত বলেও মনে করছেন।শিল্প মহলে কান পাতলে এমন অভিযোগও শোনা যায় যে রিলায়েন্সের এই ব্যবসায়িক সাফল্যের পিছনে রাজনৈতিক মদত রয়েছে। এই মুহূর্তে দুটি শিল্প পরিবারই এখন সরকারি বরাত থেকে শুরু করে বিভিন্ন সুবিধে পেয়ে থাকেন।অম্বানি আর আদানি। আর ঠিক এই কারণে দেশের প্রতিষ্ঠিত একাধিক নামী শিল্প পরিবার নতুন করে  বিনিয়োগ করায়  আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। মুডিজ ইনভেস্টর সার্ভিসের মতে ভারতে অতিমারি পরবর্তী সময়ে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে ঘুরে দাঁড়াতে ২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ দরকার। যাতে অতিমারির কারণে হয়ে যাওয়া আর্থিক ক্ষতি সামাল দিয়ে লাভের মুখ দেখা যাবে। কিন্তু দেশের অভ্যন্তরে যদি শুধুমাত্র দুই পরিবারের রমরমা চলতে থাকে তাহলে বাকি শিল্পপতিরা বিনিয়োগ করতে আর এগিয়ে আসবে না।

    দেশে রেল থেকে বিমানবন্দর, টেলিকম সর্বত্রই এই দুই পরিবারের ভয়ঙ্কর উপস্থিতি চোখে পড়ছে। সমস্ত সরকারি বরাতই যাচ্ছে এই দুই শিল্প গোষ্ঠীর হাতে। এই ভাবে দেশের বাণিজ্যিক ক্ষমতার রাশ চলে যাচ্ছে অম্বানি আর আদানিদের হাতে। প্রায় ২৪ হাজার ৭১৩ কোটি টাকা খরচ করে ফিউচার গোষ্ঠীর ব্যবসা কিনে নিয়ে রিলায়েন্স গোষ্ঠী তাদের বাণিজ্যিক সাম্রাজ্য আরও বাড়িয়ে ফেলল।  আগামি দিনে তারা এই ক্ষেত্রে আরও ১৬০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে বলেও জানিয়েছে।